সর্বশেষ:
রূপগঞ্জে শীত বস্ত্র বিতরণ কর্মসূচি বহুল প্রতীক্ষিত উপজেলা কমপ্লেক্স শহীদ মিনারের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন একতা ব্লাড ও সমাজকল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ পরিক্ষা নির্ণয় কর্মসূচি রক্ত বালক রায়হান মিয়ার গল্প শরীফ শরীফার গল্পের সমর্থকদের বলছি- মাহবুব আলম প্রিয় রূপগঞ্জে খৃষ্টান থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলো সোহেল টুডু নামের এক যুবক একতা ব্লাড ও সমাজকল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের মধ্যে শীতবস্ত্র বিতরণ অব্যাহত নতুন বিজ্ঞাপনে ইলিয়াস কাঞ্চন-হাসান জাহাঙ্গীর রূপগঞ্জে অটোরিকশার চাপায় স্কুল ছাত্রের মৃত্যু সামাজিক সংগঠন রূপগঞ্জ সোস্যাল ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এতিম শিক্ষার্থীদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ
February 26, 2024, 11:24 pm
শিরোনাম:
পরীক্ষা মূলক সম্প্রচার চলছে

Categories

পূর্বাচলে বাণিজ্যমেলার স্থায়ী প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

রূপগঞ্জ বার্তা ডেস্ক 574 বার পঠিত
Update : Thursday, October 21, 2021

খোরশেদ আলম, নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ পূর্বাচলে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার স্থায়ী প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যুক্ত থেকে বানিজ্য মেলার স্থায়ী প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার (বিবিসিএফইসি) উদ্বোধন কালে বাণিজ্য মন্ত্রী তার বক্তব্যে জানান, ১ জানুয়ারী ২০২২ এর বাণিজ্য মেলা এখানেই অনুষ্ঠিত হবে।এর আগে চলতি বছরের ৭ ফেব্রুয়ারি এক্সিবিশন সেন্টারটি সরকারের কাছে হস্তান্তর করে চীনা নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চায়না স্টেট কন্সট্রাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশন।চীনের আর্থিক ও কারিগরি সহায়তায় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) মালিকানায় পূর্বাচল নতুন শহরের ৪ নম্বর সেক্টরে ২০ একর জমিতে নির্মিত হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ-চায়না ফ্রেন্ডশিপ এক্সিবিশন সেন্টার’।রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরো এক্সিবিশন সেন্টারটি নির্মাণের প্রধান উদ্দেশ্য হিসেবে উল্লেখ করেছে, দেশের সামগ্রিক বাণিজ্য আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সম্প্রসারণের অংশ হিসেবে দেশি-বিদেশি পণ্য উৎপাদনকারী ও ক্রেতাদের দেশে আন্তর্জাতিক মানের একটি কমন প্ল্যাটফর্মে নিয়মিত ও সরাসরি যোগাযোগের সুযোগ তৈরি করে দেওয়া।

এক্সিবিশন সেন্টারটি নির্মাণে মোট ব্যয় হয়েছে ৭৭৩ কোটি টাকা। যার মধ্যে চীনের অনুদান ৫২০ কোটি ৭৩ লাখ টাকা, বাংলাদেশ সরকারের ২৩১ কোটি টাকা ও ইপিবি নিজস্ব তহবিল থেকে ২১ কোটি ২৭ লাখ টাকা অর্থায়ন করেছে।এক্সিবিশন সেন্টারে তৈরি করা ফ্লোরের আয়তন ৩৩ হাজার বর্গমিটার, বিল্ডিংয়ের ফ্লোরের আয়তন ২৪ হাজার ৩৭০ বর্গমিটার, এক্সিবিশন হলের আয়তন ১৫ হাজার ৪১৮ বর্গমিটার। এক্সিবিশন হলে ৮০০টি বুথ রয়েছে, প্রতিটি বুথের আয়তন ৯ দশমিক ৬৭ বর্গমিটার।দোতলা পার্কিং বিল্ডিংয়ের মোট পার্কিং স্পেস সাত হাজার ৯১২ বর্গমিটার, যেখানে ৫০০টি গাড়ি রাখা যাবে আর এক্সিবিশন বিল্ডিংয়ের সামনের খোলা জায়গায় আরও এক হাজার গাড়ি পার্কিং করার সুযোগ আছে।


এই বিভাগের আরও খবর